কলেজ ভর্তি পরীক্ষা

ভর্তি পরিক্ষা পর পর ই শুরু হয়ে যায় সরকারী বিশ্ববিদ্যালয় ও মেডিকেল কলেজগুলোর ভর্তি পরীক্ষা। তবে করোনা কালীন সময়ে পেছানোর কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি বলে জানিয়েছেন সরকারের স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তরের চিকিৎসা শিক্ষা  পরিচালক ডা. একেএম আহসান হাবীব সংবাদ সম্মেলনে কথা বলেন।মেডিকেলে ভর্তি পরীক্ষা পেছানোর সিদ্ধান্ত হয়নি ।

আজ সোমবার 22.2.2021 সন্ধ্যায়  তিনি বলেন, ভর্তি পরীক্ষা পেছানোর মতো কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। আমরা তো স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এখানে মন্ত্রী থেকে যেভাবে নির্দেশনা আসে সেভাবেই আমরা কাজ করি।আগামী ২ এপ্রিল এমবিবিএস এবং ৩০ এপ্রিল ডেন্টালে ভর্তি পরীক্ষা হওয়ার কথা রয়েছে।

 

করোনাকালীন উচ্চশিক্ষার বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আজ সোমবার দুপুরে সংবাদ সম্মেলনে কথা বলেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। সেখানে আগামী ২৪ মে দেশের সব বিশ্ববিদ্যালয়ে সশরীরে ক্লাস শুরু আর তার এক সপ্তাহ আগে ১৭ মে আবাসিক হল খুলে দেওয়ার ঘোষণা দেন তিনি।এরপর মেডিকেলে ভর্তিচ্ছুদের মাঝে তাদের ভর্তি পরীক্ষা নিয়ে প্রশ্ন দেখা দেয়। যদিও শিক্ষামন্ত্রী সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের শ্রেণিকক্ষে পাঠদান শুরুর সঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির কোনো সম্পর্ক নেই। এই দুটো সম্পর্কযুক্ত নয়।

বর্তমানে বিভিন্ন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা আবাসিক হল খোলার দাবিতে আন্দোলন করছেন এবং কোনো কোনো বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা হলে উঠে গেছেন। এ অবস্থায় শিক্ষামন্ত্রী জানিয়েছেন, যারা হলে আছেন, তাদের অবিলম্বে হল ত্যাগ করতে হবে। এ ছাড়া কেউ যদি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শৃঙ্খলা বিরোধী কাজ করেন, তবে এর দায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান গ্রহণ করবে না।

শিক্ষামন্ত্রী জানান, হল খোলার আগে পরিষ্কার–পরিচ্ছন্নতার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে। প্রয়োজনে ভর্তি পরীক্ষার তারিখও এই নতুন খোলার (বিশ্ববিদ্যালয় খোলার) তারিখের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে নির্ধারণ করা হবে। তিনি আরও জানান, তড়িঘড়ি করে ভুল সিদ্ধান্তের কারণে বাংলাদেশের করোনার নিয়ন্ত্রণের যে সাফল্য, তা নষ্ট করে দেওয়া যেতে পারে না। সরকারি ও বেসরকারি সব বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য এসব সিদ্ধান্ত প্রযোজ্য হবে। স্কুল–কলেজ খোলার বিষয়ে এক প্রশ্নের বিষয়ে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘২৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ আছে। তার আগে করোনা মোকাবিলাসংক্রান্ত জাতীয় কারিগরি বিশেষজ্ঞ কমিটির সঙ্গে পরামর্শ করে কবে থেকে ক্লাস শুরু হবে, তা জানিয়ে দেওয়া হবে।

হলে ওঠার আগেই করোনাভাইরাসের টিকা নিতে হবে পেছাবে বিসিএস পরীক্ষা শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি

মেডিকেলে ভর্তি পরীক্ষায় গতকাল রোববার রাত পর্যন্ত এক লাখ ১০ হাজার আবেদন জমা পড়েছে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য শিক্ষা বিভাগের পরিচালক ডা. একেএম আহসান হাবীব।

আজ সোমবার সন্ধ্যায় এর আগে আজ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে মন্ত্রিপরিষদের ভার্চুয়াল সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় প্রধানমন্ত্রী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো খোলার পরিস্থিতি আছে কি না, তা পর্যালোচনা করার নির্দেশ দেন। করোনাভাইরাস অতিমারির কারণে প্রায় এক বছর ধরে দেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো বন্ধ রয়েছে।আগামী পাঁচ থেকে ছয় দিনের মধ্যেই আন্তঃমন্ত্রণালয় সভা করে বিষয়টি পর্যালোচনা করা হবে বলে জানিয়েছেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম। আজ দুপুরে মন্ত্রিসভার বৈঠক শেষে তিনি সচিবালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে এ তথ্য জানান। এ তথ্য জানান ডা. একেএম আহসান হাবীব। এ সময় মেডিকেল কলেজগুলোর ভর্তি পরীক্ষা পেছানোর কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি বলে জানান তিনি।

আগামী ২ এপ্রিল এমবিবিএস এবং ৩০ এপ্রিল ডেন্টালের ভর্তি পরীক্ষা হওয়ার কথা রয়েছে।

 

স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তর রাজধানীসহ সারাদেশের সরকারি মেডিকেল কলেজের জন্য নির্ধারিত সংখ্যক ভর্তিচ্ছু আসন সংখ্যা (১ লাখ ২১ হাজার) ও পরীক্ষা কেন্দ্রের (১৯টি) নাম নির্ধারণ করেছেন। তন্মধ্যে, ঢাকা মেডিকেল কলেজ (১৬ হাজার), স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজে (৭ হাজার), শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ (১২ হাজার), ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ (১২ হাজার), চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (৮ হাজার), রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (৮ হাজার)।

বাংলাদেশের সাংস্কৃতিক অঙ্গন থেকে ঝরে গেলো একটি নক্ষত্র এটিএম শামসুজ্জামান

এছাড়াও সিলেট এমএজি ওসমানি মেডিকেল কলেজ (৬ হাজার), বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ (৩ হাজার), রংপুর মেডিকেল কলেজ (৬ হাজার), কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ (৫ হাজার), খুলনা মেডিকেল কলেজ (৫ হাজার), বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (৪ হাজার), ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ (৭ হাজার), এম আবদুর রহিম মেডিকেল কলেজ দিনাজপুর (৩ হাজার), পাবনা মেডিকেল কলেজ (২ হাজার), সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ কিশোরগঞ্জ (২ হাজার) গোপালগঞ্জ শেখ সায়েরা খাতুন মেডিকেল কলেজ (৩ হাজার), মুগদা মেডিকেল কলেজ (৫ হাজার) এবং ঢাকা ডেন্টাল কলেজ (৭ হাজার)।

 

এর আগে আজ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে মন্ত্রিপরিষদের ভার্চুয়াল সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় প্রধানমন্ত্রী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো খোলার পরিস্থিতি আছে কি না, তা পর্যালোচনা করার নির্দেশ দেন। করোনাভাইরাস অতিমারির কারণে প্রায় এক বছর ধরে দেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো বন্ধ রয়েছে।আগামী পাঁচ থেকে ছয় দিনের মধ্যেই আন্তঃমন্ত্রণালয় সভা করে বিষয়টি পর্যালোচনা করা হবে বলে জানিয়েছেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম। আজ দুপুরে মন্ত্রিসভার বৈঠক শেষে তিনি সচিবালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে এ তথ্য জানান।

অন্যান্য লিখাসমুহ যা আপনি জানেন না বা জানলে অবাক হবেনঃ

রূপচর্চার জন্য দারুণ কার্যকর লেবুর ফেসপ্যাক

একইসাথে রূপচর্চা রেসিপি ও রোগনিরাময়তে সেরা দুই সবজি কি আজই জেনে নিন

পালং শাক এর রূপচর্চার সাথে পুষ্টি গুনাবলি আজই জেনে নিন

চোখের পাপড়ি ঘন আকর্ষণীয় করা সহজ ঘরোয়া পদ্ধতি আসুন জেনে নেই

থানকুনি পাতায় রয়েছে সারাজীবন যৌবন ধরে রাখার বিশেষ ক্ষমতা

গ্রিন টি প্রস্তুত খাওয়ার উপযুক্ত সময় নিয়ম ও দৈনিক জীবনের সুবিধাদি

ফিট থাকতে গ্রিন টির সুবিধা অসুবিধা 

স্বাস্থ্যকর মুলা শাক রেসিপি ও অন্যান্য গুনাগুন

মাছ দিয়ে লাল শাক রান্না Mach Dia Lal Shak Recipi

উদয় সিং Dance Dewane নাচ সবাইকে হতবাক করে অশ্রুসিক্ত হন মাধুরী দীক্ষিত সহ অন্যান্য বিচারক

3 মন্তব্য