দড়ি লাফ খেলে ওজন কমান প্রতিদিনই

প্রতিদিনের দড়ি লাফ খেলে ওজন কমান ১৩০০ ক্যালরি প্রতি ঘন্টায়। অফিস এর কাজ, ব্যাবসা পরিচালনা করা টানা বসে থেকে বা একটানা বসে থেকে শ্রম ইত্যাদি। ওজন কমান যাচ্ছে না প্রতিদিনই।  বিভিন্ন কাজ কম বেশী প্রতিদিনই আমাদের শরীরের মেদ বাড়িয়ে দিচ্ছে, যদি না আমরা শারিরীক শ্রম বা হাটাচলা নিয়ম মত  না করি।সময় মেনেজ করে বাহিরে হাটতে যাওয়া ব্যায়াম এর জন্য সেটা ও  প্রতিদিনের রুটিনে আনা যায় না সবার পক্ষে। দড়ি লাফ হচ্ছে ব্যায়াম এর মক্ষ্যম উপায় যা আমাদের কে অতিরিক্ত সময় করা বাহিরে জাওয়ার জন্য অনেকটাই লাঘব করে দেয়। ছেলেবেলায় দড়ি লাফ বা  স্কিপিং  খেলার কথা ভাবলেই গ্রামের ছোট বেলার কথা মনের কোণে ভাসে কম বেশি আমাদের সকলেরই। গ্রামে দড়ি লাফ খেলার বহুরুপী নাম আছে  দুই পায়ে দড়ি লাফ ,ক্রস দড়ি লাফ ,এক পায়ে লাফান্‌  লাল,নীল হলুদ সবুজ মনে আছে আরও বিচিত্র নাম।  আমরা যারা গ্রামে বড় হয়েছি  কিছু না বুঝেই শুধুমাত্র   দড়ি লাফ খেলতাম।

বৃষ্টিতে গাছের বা উপরে দড়ির এক প্রান্ত বেঁধে অন্য প্রান্তে হাত দিয়ে ধরে পিছন থেকে দৌর দিয়ে পুকুরে জাম্প দিতাম। তখন এতো আধুনিক স্কিপিং রোপ ছিল না। কিন্তু  আজকাল দড়ি লাফ  দারুণ ব্যায়াম হিসেবে পরিচিত যা স্বাস্থ্য ফিট রাখতে, চর্বি কমাতে,ওজন কমাতে, শরীরের ঘাম ঝরাতে দড়ি লাফের বিকল্প খুব কম।এইচ এস সি 2020 শিক্ষার্থীরা ফরম পূরণের টাকা আজ থেকে যেভাবে ফেরত পাবেন ।

উপকারিতাঃ

  • দড়ি লাফ খেলে ওজন কমান বেশি ক্যালরি খরচ হয় প্রায় ১৩০০ ক্যালরি প্রতি ঘনটায় মাংসপেশিকে টান টান করতে সাহায্য করে,শরীরের অন্য অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ ব্যালান্স থাকে এবং ভারসাম্য রক্ষা করে।
  • আপনার দেহের চর্বি ঝরাতে দড়ি লাফ জুড়ি নেই। দৌড়ানোর চেয়ে স্কিপিং বেশি ক্যালোরি বার্ন করতে সক্ষম। এক ঘন্টা স্কিপিং-এ ১৩০০ ক্যালোরি খরচ হয়!চুল মজবুত করা ও লম্বা করতে প্রাকৃতিকভাবেই অ্যালোভেরার অনন্য গুনাবলী
  • দড়ি লাফ কে একটি ভালো কার্ডিও ও হাই ইনটেনসিভ ইন্টারভেল ট্রেইনিং বলা হয়।
  • বাইরে দৌড়াতে হবে, বা সাইক্লিং বা জিম করা চিন্তা করে আলসেমি ভর করে বেশি ২ দিন গেলাম তোহ ৭ দিন ব্রেক, এক দুই দিন সিরিয়াস এর পর আর খবর থাকে না মনের মাঝে হাজার টা অজুহাত জাগে আজকে খারাপ আবহাওয়া, দুই দিন তোহ করলাম আজকে রেস্ট নেয় এটা সেটা !
  • দড়ি লাফ সুবিধা হল ঘরেই করতে পারবেন। শধু হাতের কাছে দড়ি থাকলে আর ঘরের বাইরে যেতে হবে না আর খারাপ আবহাওয়া বিভিন্ন অলসতা ও আপনার ফিটনেস রুটিনে আর বাধা হবে না।ঘরের মাঝে ফিটনেস রুটিনের অংশ স্কিপিং বা দড়ি লাফ।
  • দড়ি লাফ সুবিধা হল ঘরেই করতে পারবেন। ব্যায়ামের সবচেয়ে সস্তা উপায়। একটি রোপ হলেই হল।
    এটা আপনার মাংসপেশিকে টোন করতে সাহায্য করবে।
  • প্রতিদিনের সময় মত আপনার হাত-পা একসাথে চালানো ব্যালেন্স করবে সাথে শরীরের অন্য অঙ্গ প্রতঙ্গ। তাই সব অ্যাথলেটরাই স্কিপিং চর্চা করেন । যেহেতু শরীরের সামাঞ্জস্য রক্ষায় একটি গুরুত্বপূর্ণ ব্যায়াম।
  • দড়ি লাফ আপনার থাই টান টান করতে খুব কার্যকর এমন কি হাতের মাংসপেশিও ফুল বডি ওয়ার্ক আউট হবে।
    দড়ি লাফ আপনার হিপের মাংসপেশি টান টান করে সঠিক উপায়ে জামপ করলে।
  • গবেষণায় দেখা গেছে যে, স্কিপিং বা দড়ি লাফ আপনার জয়েন্টে কম চাপ তৈরি করে দৌড়ানোর চেয়ে তাই দৌড়ানোর চেয়ে স্কিপিং ভালো ব্যায়াম হিসেবে পরিচিত।
  • যেহেতু স্কিপিং-এর ফলে হার্ট বিট ফার্স্ট হয় তাই এটি আপনাকে আলাদা করে কার্ডিও ভাস্কুলার এক্সারসাইজ করতে হবে না।
    দড়ি লাফ সুবিধা হল ঘরেই করতে পারবেন, এক্সারসাইজ করতে আপনাকে একেবারে পারদর্শী হতে হবে তা নয়। বিগিনার থেকে অ্যাডভান্স সবাই এটি করতে পারবে।
  • নিয়মিত দড়ি লাফএক্সারসাইজ হাড়ের ঘনত্ব বাড়াতে সাহায্য করে, ফলে অস্টিওপোরোসিস-এর ঝুঁকি কমায়।

কিভাবে দড়ি লাফ খেলবেনঃ

অবশ্যই সমান জায়গায় জুতা পরে দড়ি লাফ খেলেন পায়ে ব্যাথা পাওয়ার ঝুঁকি কম থাকে, প্রথমে ধীরে ধীরে স্কিপিং করবেন এবং আস্তে আস্তে গতি বাড়াবেন।তবে খালি পায়ে খেললে অনেক সুবিধা হয় অনেক সমস্যা দূর হয় পায়ের কিন্তু একটু ঝুকি থেকেই যায় খালি পায়ে খেললে।১৫ মিনিট দড়ি লাফ খেলার পর ১০-১৫ সেকেন্ড বিরতি নেয়া উচিৎ। তাছাড়া আপনি যদি স্পোর্টস শো ব্যাবহার করে খেলতে পারেন তাহলে আপনার আরও সহজ লাগবে।

কিছু প্রকরণ দড়ি লাফ খেলারঃ

  1.  দুই পায়ে দড়ি লাফ বা ডাবল জাম্পঃ সবচেয়ে জনপ্রিয় স্কিপিং স্টাইল যাতে বেশি গতি চর্চা হয় আর ক্যালোরি বার্নও বেশি হয়।সুবিধাঃ বেশী ক্যালরি খরচ হয়।
  2. ক্রস দড়িঃ লাফ ধীর গতিতে খেলা উচিত তবে নির্দিষ্ট সময় পর পর বিরতি নিয়ে করতে হবে।সুবিধাঃ ধীর গতিতে খেলা উচিত।
  3.  এক পায়ে লাফানো  এটা দক্ষ স্কিপিং পারেন বা  ডাবল জাম্প বা ক্রস জাম্প চর্চা করে আয়ত্তে এনে এটি করা উচিত। এতে বেশি ব্যাল্যান্স দরকার হয়।