রংপুরের বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে নতুন উপাচার্য নিয়োগ

বর্তমানে দেশের বেশ কয়েকটি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যদের মেয়াদ প্রায় শেষের দিকে বিদায় নিচ্ছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের পুরনো উপাচার্যরা। বিশ্ববিদ্যালয় পরিচালনায় প্রায় মেয়াদপূর্ণ হওয়া উপাচার্যদের মধ্যে কেউ প্রশাসনিক ক্ষেত্রে দক্ষতার পরিচয় দিয়েছেন আবার বিশ্ববিদ্যালয়ের নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলেছেন কেউ ।খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে (খুবি) শিক্ষার্থীদের ন্যায্য দাবির সঙ্গে সংহতি প্রকাশের অপরাধে এক শিক্ষককে বরখাস্ত ও দুই শিক্ষককে অপসারণ কিংবা রাবি উপাচার্য কর্তৃক ছাত্রলীগকে চাকরি দিতে ‘সর্বোচ্চ’ অগ্রাধিকার,রংপুরের বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে (বেরোবি) ভিসির বিরুদ্ধে ক্যাম্পাসে না যাওয়ার অভিযোগ খবর সবারই জানা।  উপাচার্যের মেয়াদ শেষ হতে যাওয়া বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে রয়েছে বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়। উপাচার্য অধ্যাপক ড. নাজমুল আহসান কলিমুল্লাহর মেয়াদ শেষ হচ্ছে আগামী ১৩ জুন।  বিশ্ববিদ্যালয়ে বর্তমানে উপাচার্য বিরোধী আন্দোলন চলছে।

গত শুক্রবার ২২ জানুয়ারী বিশ্ববিদ্যালয়টির উপাচার্য অধ্যাপক ড. নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহ কয়েক ঘণ্টার জন্য ক্যাম্পাস পরিদর্শন করেছেন। উপাচার্যের সার্বক্ষণিক ক্যাম্পাসে থাকার কথা থাকলেও ড. নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহ মাসের পর মাস ক্যাম্পাসেই আসেন না। এ বিষয়টি নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-কর্মকর্তাদের একাংশ দীর্ঘদিন ধরেই বিক্ষোভ করে যাচ্ছেন।শিক্ষকরা জানান, তিনি ঢাকায় থাকতেই পছন্দ করেন।ক্যাম্পাস সূত্র আরও জানায়, কয়েক ঘণ্টার জন্য ক্যাম্পাস পরিদর্শন করেছেন বিশ্ববিদ্যালয় টির উপাচার্য সকাল ৯টার দিকে ক্যাম্পাসে এসে সরাসরি তার বাসভবনে যান।

উপাচার্যের ব্যক্তিগত সচিব মো. আমিনুল ইসলামের মাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ও কর্মকর্তারা জানতে পারেন যে, তিনি ক্যাম্পাসে এসেছেন। সে খবর জানতে পেরে, সকাল ১১টার দিকে উপাচার্যের বাসভবনের সামনে জড়ো হয়ে বিক্ষোভ করেন তারা একত্রে।শিক্ষকদের নিয়ে গঠিত বেরোবির অধিকার সুরক্ষা পরিষদের আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. মতিউর রহমান বিক্ষোভ চলাকালে উপাচার্যের সঙ্গে যোগাযোগ করার জন্য বেশ কয়েকবার চেষ্টা করে ও বার বার ব্যর্থ হন।দুপুর আড়াইটার দিকে তারা জানতে পারেন, উপাচার্য তার বাসভবন ছেড়ে চলে গেছেন। অথচ, বাসভবনটির সামনেই শিক্ষক-কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

উপাচার্য পেছনের দরজা দিয়ে তার বাসভবনে প্রবেশ করেন এবং বের হন জানিয়ে অধ্যাপক ড. মতিউর রহমান বলেন, ‘ক্যাম্পাসে উপাচার্যের দীর্ঘ অনুপস্থিতির কারণে একাডেমিক ও প্রশাসনিক কার্যক্রমে ব্যাহত হচ্ছে।’উপাচার্য তার পদের অপব্যবহার করছেন বলে অভিযোগ করেন তিনি।

বেরকবির বাংলা বিভাগের শিক্ষক তুহিন ওয়াদুদ বলেন যে, উপাচার্যের অনুপস্থিতির কারণে বেরোবি শিক্ষক ও কর্মকর্তারা বিক্ষোভ করছেন। অথচ, তার বেশিরভাগ সময় ক্যাম্পাসেই থাকার কথা।তিনি এক হাজার ৩০০ কার্যদিবসের মধ্যে মাত্র ২০০ কার্যদিবসে তার অফিসে উপস্থিত ছিলেন বলে বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়।

শূণ্য হওয়া গুরুত্বপূর্ণ বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে পরবর্তী চার বছরের জন্য নিয়োগ পেতে বিভিন্ন সরকার সমর্থক শিক্ষকের মধ্যে কিছুদিন ধরে দৌড় শুরু হয়েছে।প্রশাসনিক কর্মকর্তাকে দায়িত্ব দেওয়া হয় নজিরবিহীন।

উপাচার্যের মেয়াদ শেষ হতে যাওয়া বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে রয়েছে বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়। উপাচার্য অধ্যাপক ড. নাজমুল আহসান কলিমুল্লাহর মেয়াদ শেষ হচ্ছে আগামী ১৩ জুন। উপাচার্য হিসেবে নিয়োগ পাওয়ার পর থেকেই তিনি অবস্থান করছেন ঢাকাতে। ক্যাম্পাসে নিয়মিত না থাকায় তার অনুপস্থিতিতে বিশ্ববিদ্যালয়ে নানা প্রশাসনিক জটিলতা সৃষ্টি হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ে আইন ও প্রথা অনুযায়ী উপাচার্যের পদ শূন্য হলে সহ উপাচার্যকে রুটিন দায়িত্বে বা ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য করা হয়। সহ–উপাচার্য না থাকলে সেই দায়িত্ব পান কোষাধ্যক্ষ। যদি কোষাধ্যক্ষও না থাকে, তাহলে ডিন বা জ্যেষ্ঠ শিক্ষককে এ দায়িত্ব দেওয়া হয়। তাছাড়া ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার অধ্যাপক হাসিবুর রশীদ, গণিত বিভাগের অধ্যাপক ড. হাফিজুর রহমান ও বর্তমান উপ-উপাচার্য অধ্যাপক শরীফা সালোয়া ডিনার মধ্যে যে কাউকে দেখা যেতে পারে এ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য পদে। আবার ঢাকা ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকেও কোন অধ্যাপককে নিয়ােগ দেওয়া হতে পারে।উপাচার্য বা ভিসি বাংলাদেশ, ইংল্যান্ড, আয়ারল্যান্ড, নিউজিল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া, ভারত, শ্রীলংকা সহ কমনওয়েলথ ভুক্ত দেশগুলোর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান নির্বাহী কিংবা দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রধান। মূলত উপাচার্য হচ্ছেন আচার্যর সহযোগী। এছাড়া উপাচার্যের সহযোগী হিসেবে থাকেন উপ-উপাচার্য।বাংলাদেশে পদাধিকার বলে সব বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য হচ্ছেন রাষ্ট্রপতি। এছাড়া উপাচার্য হচ্ছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের নির্বাহী প্রধান এবং তার সহযোগী উপ-উপাচার্য প্রশাসনিক সকল বিষয় দেখাশোনা করেন।প্রশাসনিক কর্মকর্তাকে দায়িত্ব দেওয়া হয় নজিরবিহীন।

অন্যান্য লিখাসমুহ যা আপনি জানেন না বা জানলে অবাক হবেনঃ

রূপচর্চার জন্য দারুণ কার্যকর লেবুর ফেসপ্যাক

একইসাথে রূপচর্চা রেসিপি ও রোগনিরাময়তে সেরা দুই সবজি কি আজই জেনে নিন

পালং শাক এর রূপচর্চার সাথে পুষ্টি গুনাবলি আজই জেনে নিন

চোখের পাপড়ি ঘন আকর্ষণীয় করা সহজ ঘরোয়া পদ্ধতি আসুন জেনে নেই

থানকুনি পাতায় রয়েছে সারাজীবন যৌবন ধরে রাখার বিশেষ ক্ষমতা

গ্রিন টি প্রস্তুত খাওয়ার উপযুক্ত সময় নিয়ম ও দৈনিক জীবনের সুবিধাদি

ফিট থাকতে গ্রিন টির সুবিধা অসুবিধা 

স্বাস্থ্যকর মুলা শাক রেসিপি ও অন্যান্য গুনাগুন

মাছ দিয়ে লাল শাক রান্না Mach Dia Lal Shak Recipi

উদয় সিং Dance Dewane নাচ সবাইকে হতবাক করে অশ্রুসিক্ত হন মাধুরী দীক্ষিত সহ অন্যান্য বিচারক