স্ত্রীর বড় বোনের মেয়েও রুবেল লালসার শিকার

ময়মনসিংহের তারাকান্দা উপজেলায় এক কিশোরীকে অপহরণের পর আটকে রেখে লালসার শিকার করার অভিযোগে মো. রুবেল মিয়া (৩০) নামে একজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।বিয়ের কিছুদিন পর থেকে ই শুরু রুবেল মিয়া এর হিংস্র লালসা, স্ত্রীর বড় বোনের মেয়ে কে ও রেহাই দেয়নি রুবেল এই নোংরা লালসা।কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগে কারাগারে খালু রুবেল মিয়া ।রুবেল ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার শিবপুর গ্রামের মৃত আজিম উদ্দিনের ছেলে। সম্পর্কে রুবেল ওই কিশোরীর খালু।বুধবার মানিকগঞ্জ থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়, রুবেলের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে নারায়নগঞ্জ থেকে ভুক্তভোগী কে উদ্ধার করে পুলিশ।

আরও পড়ুনঃ এখন-ই উদ্যোগ নেয়ার পরামর্শ বাংলাদেশের অর্থনীতিকে বদলে দেবে মহাকাশ প্রযুক্তি

আজ ১৮ ফেব্রুয়ারী  বৃহস্পতিবার দুপুরে আদালতের মাধ্যমে তাকে জেলহাজতে পাঠানো হয়। এর আগে গতকাল বুধবার মানিকগঞ্জ থেকে অভিযোগে মো. রুবেল মিয়া, তাকে গ্রেপ্তার করা হয় । গ্রেপ্তার পরে প্রাথমিক ভাবে রুবেলের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে নারায়ণগঞ্জ থেকে ভুক্তভোগী কিশোরীকে উদ্ধার করে পুলিশ। তারাকান্দা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল খায়ের এ তথ্য জানিয়েছেন।

রুবেল গত বছরের অক্টোবর মাসের মাঝামাঝি সময়ে তারাকান্দার ডাকুয়া ইউনিয়নে বিয়ে করেন বিয়ের বয়স দুই মাস।

তথ্য সুত্রে জানা যায়,  রুবেল মিয়া প্রায় চার মাস পূর্বে তারাকান্দা উপজেলার হরিয়াতলা গ্রামের আব্দুল গনির মেয়ে মিরজানা বেগমকে বিয়ে করেন। পরে রুবেল মিয়া শ্বশুরালয়ে বেড়াতে আসেন। গত ২০ ডিসেম্বর তার স্ত্রীর বোনের মেয়ে (ভাগ্নি) মাদ্রাসার ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রীকে (১৩) সিএনজি অটোরিকশাযোগে অপহরণ করেন। ওই ছাত্রীকে নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লা থানার নিউ হাজিগঞ্জ এলাকায় নিয়ে আটকে রেখে জোরপূর্বক ধর্ষণ করেন রুবেল। বিয়ের দুই মাসের মাথায় রুবেল তার স্ত্রীর বড় বোনের মেয়েকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে অপহরণ করে নিয়ে যান । ওসি জানান, গেলো বছরের ২০ ডিসেম্বর ওই কিশোরীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে অপহরণ করে রুবেল। ঘটনার প্রায় দুই মাস পর গেলো ১৫ ফেব্রুয়ারি মামলা করেন কিশোরীর বাবা। মামলার পর পুলিশ তাকে গ্রেপ্ত ার এবং কিশোরীকে উদ্ধার করে।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই আব্দুস সবুর জানান, রুবেল গেলো বছরের অক্টোবর মাসের মাঝামাঝি সময়ে তারাকান্দার ডাকুয়া ইউনিয়নে বিয়ে করেন। বিয়ের দুই মাসের মাথায় তার স্ত্রীর বড় বোনের মেয়েকে বিয়ের প্রলোভনে অপহরণ করে। বিষয়টি কিশোরীর পরিবার গোপনে মীমাংসার চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়ে থানায় মামলা করেন।এসআই আরও বলেন, গ্রেপ্ত ারের পর প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে রুবেল স্বীকার করেছে। আজ বৃহস্পতিবার ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ওই কিশোরীর ফরেনসিক পরীক্ষা করা হয়েছে।

তিনতলা ভবন পাশের ডোবায় ধসে পড়ে ঢাকার কেরানীগঞ্জে

২০১৯ সালের বার্ষিক প্রতিবেদনের তথ্য অনুজায়ী সারা দেশে ধর্ষণের ঘটনা আগের চেয়ে দ্বিগুণ বেড়েছে। গত বছর সারা দেশে ধর্ষণ ও গণধর্ষণের শিকার ১ হাজার ৪১৩ নারী ও শিশু। ২০১৮ সালে সংখ্যাটি ছিল ৭৩২। মানুষের জন্য ফাউন্ডেশন মোতাবেক গত বছর ৯০২ শিশু ধর্ষণের শিকার হয়। ২০১৮ সালে এ সংখ্যা ছিল ৩৫৬।বাংলাদেশ শিশু অধিকার ফোরাম অনুযায়ী ২০১৯ সালের প্রতিবেদন অনুযায়ী প্রতি মাসে গড়ে ৮৪টি শিশু ধর্ষণের শিকার হচ্ছে। এ ছাড়া এক বছরে যৌন নির্যাতন বেড়েছে ৭০ শতাংশ। গত বছর যৌন নির্যাতনের শিকার হয় ১ হাজার ৩৮৩ শিশু। ২০১৮ সালের চেয়ে গত বছর শিশু ধর্ষণ ৭৬ দশমিক শূন্য ১ শতাংশ বেড়েছে।ধর্ষণের সংস্কৃতি এমন এক সংস্কৃতি , যেখানে সমাজের প্রত্যেক নারী, শিশু কিংবা কিশোরী বালিকা ধর্ষণের মতো পরিস্থিতির শিকার হতে পারে। পুলিশ পরিসংখ্যান অনুযায়ী বাংলাদেশে ২০১৯ সালে ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে ৫৪০০টি। এ তথ্য ভিত্তিতে  অনুযায়ী বাংলাদেশে ধর্ষণের হার ৩.৮০ অর্থাৎ প্রতি ১ লাখ নারী-নারীর মধ্যে প্রায় ৪ জন নারী-শিশুকেই ধর্ষণের শিকার হতে হয়েছে, যা স্মরণকালের ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি। আমরা দেখতে পাই ১৯৯১, ২০০১, ২০১১ ও ২০১৮ সালে প্রতি লাখে ধর্ষণের হার যথাক্রমে ০.৩৯ জন, ২.৩৭ জন, ২.৩৮ জন ও ২.৪৫ জন। শুধু পরিসংখ্যান বিবেচনায় ২০১৮ সালের তুলনায় ২০১৯ সালে ধর্ষণের এ হার বাড়ার পরিমাণ প্রায় প্রতি লাখে ১.৩৫ জন বা এক-তৃতীয়াংশ।

অন্যান্য লিখাসমুহ যা আপনি জানেন না বা জানলে অবাক হবেনঃ

রূপচর্চার জন্য দারুণ কার্যকর লেবুর ফেসপ্যাক

একইসাথে রূপচর্চা রেসিপি ও রোগনিরাময়তে সেরা দুই সবজি কি আজই জেনে নিন

পালং শাক এর রূপচর্চার সাথে পুষ্টি গুনাবলি আজই জেনে নিন

চোখের পাপড়ি ঘন আকর্ষণীয় করা সহজ ঘরোয়া পদ্ধতি আসুন জেনে নেই

থানকুনি পাতায় রয়েছে সারাজীবন যৌবন ধরে রাখার বিশেষ ক্ষমতা

গ্রিন টি প্রস্তুত খাওয়ার উপযুক্ত সময় নিয়ম ও দৈনিক জীবনের সুবিধাদি

ফিট থাকতে গ্রিন টির সুবিধা অসুবিধা 

স্বাস্থ্যকর মুলা শাক রেসিপি ও অন্যান্য গুনাগুন

মাছ দিয়ে লাল শাক রান্না Mach Dia Lal Shak Recipi

উদয় সিং Dance Dewane নাচ সবাইকে হতবাক করে অশ্রুসিক্ত হন মাধুরী দীক্ষিত সহ অন্যান্য বিচারক